দোকান থেকে চুরি হওয়া স্মার্টফোন কিনেছেন নাকি? যাচাই করবেন যেভাবে


Gamebazz ডেস্ক: অনেকেই চুরি করা স্মার্টফোন সেকেন্ড হ্যান্ড মার্কেটে বিক্রি করেন। এমনকী প্যাকেট সমেত চুরি হওয়া ফোন চলে আসে সোজাসুজি রিটেইল স্টোরে। চুরি করা ফোন শনাক্ত করা সহজ করে দিয়েছে সরকার। এই জন্য সামনে এসেছে সেন্ট্রাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার। এই পোর্টালে IMEI নম্বর যাচাই করে কোন ফোন চুরি হওয়া কী না অথবা নকল কী না, তা কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই জানিয়ে দেওয়া হয়। এই পোর্টাল ব্যবহার করে স্মার্টফোন যাচাই করবেন কীভাবে? দেখে নিন।


সেন্ট্রাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারে যাচাই করার জন্য প্রয়োজন IMEI নম্বর। সব মোবাইল ফোনের সঙ্গে একটি 15 ডিজিটের IMEI নম্বর থাকে। IMEI ছাড়া ফোন বিক্রি করা ভারতে বেআইনি। ফোনে *#06# টাইপ করলে IMEI নম্বর দেখা যাবে। যদি IMEI নম্বর দেখতে না পান তবে বেআইনি ভাবে ভারতে সেই ফোন বিক্রি করা হয়েছে।

IMEI নম্বর জেনে সেন্ট্রাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার পোর্টাল ভিজিট করুন। এই জন্য এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।এর পরেই ডিভাইস ভেরিফিকেশন পেজ -

 https://ceir.gov.in/Device/CeirIMEIVerification.jsp – ভিজিট করুন। এখানে ফোনের IMEI নম্বরটি বৈধ কী না, যাচাই করে নিন। এমন কোনও ফোন কিনবেন না যে ফোনের IMEI নম্বর অবৈধ। সাধারণত চুরি যাওয়া ফোনের IMEI নম্বর অবৈধ দেখায়। এছাড়াও OTP ভেরিফিকেশনের জন্য আপনার মোবাইল নম্বর দিতে হবে।

ওয়েবসাইট ছাড়াও SMS-এর মাধ্যমে কোন ফোনে IMEI নম্বর যাচাই করা যাবে। ফোন থেকে KYM <15 ডিজিটের IMEI নম্বর> টাইপ করে 14422 নম্বরে SMS পাঠিয়ে দিন।

টেলিকম দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, বেআইনি ফোনের বাজারে লাগাম টানতেই সেন্ট্রাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার তৈরি করা হয়েছে। সব মোবাইল অপারেটরের IMEI ডেটাবেসে কানেকটেড রয়েছে এই পোর্টাল। এই পোর্টালে কোন IMEI ব্ল্যাক লিস্টেড হলে কোনও নেটওয়ার্কে সেই ফোন কাজ করবে না। সিম কার্ড বদল করার পরেও সেই ফোন কাজ করবে না।

No comments:

Powered by Blogger.