৯ বছরের একটি মেয়েকে মর্মান্তিক ভাবে হত্যা করল ১১ বছরের একটি ছেলে, নেপথ্যে অনলাইন গেম




গেমবাজ ডেস্ক: কিছু খবর সামনে আসার পর জানা গেছে, মধ্যপ্রদেশের একটি মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে মর্মান্তিক ভাবে। গতকাল মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে ১১ বছর বয়স একটি ছেলে ৯ বছর বয়সী একটি মেয়েকে হত্যা করেছে। তবে এই হত্যা করার কারণ সত্যিই হতবাক করার মত। জানা গিয়েছে, এই মেয়েটি ছেলেটিকে একটি অনলাইন গেমে বারবার পরাজিত করেছিল। তারপরেই ওই ছেলেটি মেয়েটিকে মর্মান্তিক ভাবে হত্যা করে। সোমবার ওই ছেলেটি মেয়েটিকে নিয়ে একটি মাঠে চলে যায় এবং সেখানে মেয়েটির মাথায় পাথর দিয়ে আঘাত করে। রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে দুজনেই ইন্দোরের লাসুডিয়ার বাসিন্দা। সোমবার তারা একটি অনলাইন গেম খেলছিল যেখানে একটি দ্বীপের উপরে বেঁচে থাকার জন্য একজনকে অন্যজনকে মেরে ফেলতে হয়। লকডাউন শুরু হবার সময় থেকেই এই দুজন ওই গেমে মত্ত ছিল। তারা দিনের প্রায় অর্ধেক সময়ই এই গেমের পেছনে দিয়ে দিত।

 তবে, তার পরই ঘটে এক বিশাল ঘটনা। সোমবার, মেয়েটি ছেলেটিকে বারবার সেই গেমে হারিয়ে দিতে শুরু করে। বারবার হেরে যাওয়ায় ছেলেটি রেগে গিয়ে মেয়েটিকে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়। এর পরবর্তীতে ছেলেটি মেয়েটিকে মাঠে নিয়ে গিয়ে পাথর দিয়ে মারতে আরম্ভ করে। যখন মেয়েটি মারা যায় তখন ছেলেটি তার বাড়িতে পালিয়ে আসে এবং নিজেকে বাথরুমে আবার বন্দি করে নেয়। বিকেলে মেয়েটির পরিবার তাঁকে খুঁজতে শুরু করে এবং কিছু প্রত্যক্ষদর্শীর কথা অনুযায়ী মাঠে গিয়ে তার মৃতদেহ আবিষ্কার করে। অনেকেই সকাল ১০:৩০ নাগাদ মেয়েটিকে ওই ছেলেটির সাথে হাঁটতে দেখেছিল। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান অনুসারে পুলিশ রিপোর্ট করা হয়। পুলিশ তদন্ত শুরু করলে, ছেলেটির পরিবার জানায় যে সে নিখোঁজ। তবে, তদন্ত শুরু করলে পুলিশরা ছেলেটিকে তার বাড়ির বাথরুম থেকে খুঁজে বের করে। তার পরে ছেলেটি তার দোষ স্বীকার করে এবং পুলিশ তাকে হেফাজতে নিয়ে যায়। তবে শুধুমাত্র অনলাইন গেম নয়, স্থানীয়দের বয়ান অনুযায়ী জানা গিয়েছে, মেয়েটি এর আগে ছেলেটির পোষা ইঁদুর কে হত্যা করেছিল, ফলে এই রাগ চরিতার্থ করার জন্য ছেলেটি মেয়েটিকে মারতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে। পুলিশ তদন্ত চলছে নতুন কিছু তথ্যও সামনে উঠে আসতে পারে।

No comments:

Powered by Blogger.