আধার কার্ড থাকলেই ৩০০০ টাকা পাবেন প্রত্যেক মাসে! জানুন বিস্তারিত


Gamebazz  ডেস্ক: অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের সহায়তার জন্য, ভারত সরকার প্রধানমন্ত্রী শ্রম যোগী মন-ধন যোজনা শুরু করেছে। এই প্রকল্পের আওতায় এখন পর্যন্ত ৪৪.৯০ লক্ষেরও বেশি শ্রমিক নিজেদের নাম রেজিস্ট্রেশন করিয়েছে।


শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রী সন্তোষ গাঙ্গোয়ার বলেছেন যে, অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের সুরক্ষা দেওয়ার জন্য, মার্চ ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শ্রম যোগী মন-ধন যোজনা চালু করা হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় ৬০ বছর বয়সের পর ন্যূনতম 3000 টাকা পেনশন দেওয়ার হবে।


এই প্রকল্পের আওতায়, ২০২১ সালের ৪ মার্চ অবধি প্রায় ৪৪.৯০ লক্ষ কর্মী নাম রেজিস্ট্রেশন করেছেন। এই স্কিমটিতে 18-40 বছরের বয়সী কর্মীরা নিজেদের নাম অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারেন। যাদের মাসিক আয় 15,000 টাকারও কম একমাত্র তারাই এই আবেদন করতে পারবেন।


প্রধানমন্ত্রী-এসওয়াইএম স্কিমের আওতায় শ্রমিকদের বিভিন্ন বয়স অনুসারে বিভিন্ন অর্থ বিনিয়োগ করতে হয়। এই প্রকল্পের আওতায় মাসে 55 থেকে 200 টাকার বিনিয়োগ করা যেতে পারে।


প্রধানমন্ত্রী শ্রম-যোগী মন-ধন যোজনায় 18 বছর বয়সের উপরে যারা তাদের প্রতি মাসে 55 টাকা দিতে হবে। 30 বছর বয়সী আবেদনকারীদের 100 টাকা এবং 40 বছর বয়সের উপরের আবেদনকারীদের 200 টাকা দিতে হবে।

কোনও শ্রমিক যদি 18 বছর বয়স থেকে প্রধানমন্ত্রী-এসওয়াইএম স্কিমটিতে নিজের নাম রেজিস্ট্রেশন করে থাকে তবে তাকে এক বছরে মাত্র 660 টাকা জমা দিতে হবে। সেই কর্মীকে 60 বছর বয়স পর্যন্ত 27,720 টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। শ্রমিকদের 42 বছরের জন্য অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে। 60 বছর বয়সের পর তিনি প্রতি মাসে 3,000 টাকাপাবেন।


ভারত সরকারের এই প্রকল্পটি ভারতের জীবন বীমা কর্পোরেশন (এলআইসি) এর মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। সুতরাং, এলআইসি পেনশনও দেবে।


প্রধানমন্ত্রীর শ্রমযোগী মন-ধন পেনশন যোজনায় রেজিস্ট্রেশনের জন্য শুধুমাত্র আধার কার্ড এবং ব্যাংক অ্যাকাউন্টের পাসবুক প্রয়োজন। এই দুটি ডকুমেন্টের সাহায্যে খুব সহজেই সিএসসি কেন্দ্র থেকে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।তবে এক্ষেত্রে আপনার আধার কার্ডের সঙ্গে আপনার ফোন নম্বরটি যুক্ত থাকতে হবে।


অ্যাকাউন্ট খোলার পরে শ্রমিককে শ্রম যোগী কার্ড দেওয়া হবে। এই স্কিমটি সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে হেল্পলাইন নম্বর 1800-267-6888 তে যোগাযোগ করতে পারেন।

No comments:

Powered by Blogger.