WhatsApp-এর মারাত্মক সব ভুল ! এখনই বন্ধ করুন


Gamebazz  ডেস্ক: ভারত তথা বিশ্বের জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ WhatsApp। প্রায় প্রত্যেকের স্মার্টফোনেই এই অ্যাপ ইন্সটল করা থাকে। প্রিয়জন থেকে অফিসে সহকর্মী, দৈনন্দিন যোগাযোগের জন্য সকলের প্রথম পছন্দ WhatsApp। কিন্তু WhatsApp-এ ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠানোর কোনও ব্যবস্থা নেই। তাই চাইলে যে কেউ আপনাকে WhatsApp-এ মেসেজ পাঠাতে পারেন, যা অনেক সময় বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে। তাই WhatsApp ব্যবহারের সময় এই ভুলগুলি এখনই বন্ধ করুন।


সকলকে WhatsApp অ্যাকাউন্টের অ্যাকসেস দেওয়া বন্ধ করুন - আপনি যে সব মানুষের সঙ্গে আর যোগাযোগ রাখেন না, সেই মানুষগুলিকে ফোনের কন্টাক্ট লিস্ট থেকে ডিলিট করুন। আপনি যদি মনে করেন পরে তাঁদের প্রয়োজন হতে পারে, তাহলে নম্বর ডিলিট না করে WhatsApp থেকে ব্লক করুন। পাঁচ বছর আগে আপনি দিল্লির যে বাড়িতে ভাড়া থাকতেন সেই বাড়ির মালিককে WhatsApp অ্যাকাউন্টের অ্যাকসেস দেওয়ার কোনও মানে নেই। এই মুহূর্তে প্রায় সকলের পকেটেই একটি স্মার্টফোন রয়েছে, আর সেই স্মার্টফোনে WhatsApp ইন্সটলও থাকে।


WhatsApp প্রোফাইল ফোটোতে সতর্কতা - WhatsApp-এ প্রোফাইল ছবি যতটা পারবেন সাধারণ রাখুন। সেখানে নিজের অথবা পরিবারের সদস্যদের সম্পর্কে খুব বেশি তথ্য যেন দেখা না যায়। ছবিতে গাড়ি দেখা গেলে নম্বর মুছে দিন। কারণ, সাধারণত WhatsApp কন্টাক্ট লিস্টে সবাই আপনার প্রোফাইল ছবি দেখতে পাবেন।


টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন - টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন এনাবল করুন। এর ফলে সিম ফ্রড হলেও আপনার WhatsApp অ্যাকাউন্ট হ্যাক হবে না। এছাড়াও আপনার কাছ থেকে ওটিপি চুরি করে কেউ WhatsApp-এ লগ ইন করতে পারবেন না।


ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও ফেস লক - সুরক্ষার জন্য বিশেষ ফিচার রয়েছে WhatsApp-এ। এর সাহায্যে ফিঙ্গারপ্রিন্ট অথবা ফেস লকের মাধ্যমে WhatsApp প্রোফাইল সুরক্ষিত রাখা যাবে। প্রত্যেকবার ওপেন করার সময় ফিঙ্গারপ্রিন্ট অথবা ফেস আনলক ফিচার ব্যবহার করা যাবে। যদিও শুধুমাত্র আইফোন গ্রাহকরাই ফেস আনলক ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন। সেটিংসে প্রাইভেসি সেকশনে গিয়ে এই ফিচার এনাবেল করতে পারবেন।


স্টেটাস শেয়ারিং - স্টেটাস শেয়ার করার সময় তা পাবলিক রাখবেন না। সেটিংস থেকে শুধুমাত্র কন্টাক্ট লিস্টের জন্য স্টেটাস দেখার অপশন অন করুন। ক্যাব ড্রাইভার, পাড়ার চায়ের দোকানের মালিককে নিশ্চই আপনার স্টেটাস দেখাতে চাইবেন না।


WhatsApp গ্রুপে অ্যাড করার অপশন বন্ধ করুন- WhatsApp গ্রুপে যে কেউ আপনাকে যেন অ্যাড করতে না পারেন, সেটিংস থেকে তা বন্ধ করুন। প্রাইভেসি সেটিংসে এই ফিচার পাবেন। এর ফলে যে কেউ আপনাকে WhatsApp গ্রুপে অ্যাড করতে পারবেন না।


মিডিয়া ফাইল ফোনের গ্যালারি থেকে তাড়ান- WhatsApp-এর সব ছবি ফোন মেমোরিতে সেভ হয়। তাই সব গ্রুপের 'সুপ্রভাত', 'শুভরাত্রি' লেখা ছবি গ্যালারিতে ঢোকাবেন না। সেটিংস মেনু থেকে এই অপশন বন্ধ করুন।


চ্যাটের অটো ব্যাক-আপ বন্ধ করুন - শুধুমাত্র WhatsApp চ্যাট এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপটেড, চ্যাটের ব্যাক আপ নয়। তাই নিজের চ্যাট সুরক্ষিত রাখতে অটো ব্যাক আপ বন্ধ করুন। এছাড়াও অকারণে প্রতিদিনের ব্যাক আপ আপনার ক্লাউড স্টোরেজে জায়গা নষ্ট করে।


পর্ন শেয়ার করা বন্ধ করুন, জেলে যেতে হতে পারে - WhatsApp-এ পর্ন শেয়ার করা বন্ধ করুন। কেউ আপনার নামে অভিযোগ জানালে আপনাকে জেলেও যেতে হতে পারে।


সব খবর শেয়ার বন্ধ করুন - খবরের সত্যতা যাচাই না করে শেয়ার করা বন্ধ করুন। ভুয়ো খবর ছড়ানোর অপরাধে আপনাকে গ্রেফতার করতে পারে পুলিশ। এছাড়াও এমন কোন খবর শেয়ার করবেন না, যা হিংসা ছড়াতে পারে।


ঘৃণা ছড়ায় এমন কিছু শেয়ার করবেন না - ভুয়ো খবরের মতোই এমন কোন মেসেজ শেয়ার করবেন না যা ঘৃণা ছড়ায়। এই ধরনের মেসেজ থেকে দূরে থাকুন।


অন্য কারও নামে WhatsApp অ্যাকাউন্ট খুলবেন না - সব সময় নিজের নামে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট খুলুন। অন্য কারও নামে কখনই কোন হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট খুলবেন না।


ডিসঅ্যাপিরিয়ারিং মেসেজ ব্যবহার করুন - WhatsApp-এর চ্যাট সব সময়ের জন্য রাখার প্রয়োজন না থাকলে ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজ ব্যবহার শুরু করুন। এই ফিচারে নির্দিষ্ট সময় পরে WhatsApp-এর চ্যাট নিজে থেকেই ডিলিট হতে শুরু করবে। এর ফলে চ্যাট পরিষ্কার থাকবে।


WhatsApp ওয়েবে অতিরিক্ত সুরক্ষা - WhatsApp ওয়েব লিঙ্ক করার সময় নতুনন সুরক্ষার স্তর যোগ করেছে এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ। এর ফলে নতুন WhatsApp ওয়েব লিঙ্ক করার আগে ফিঙ্গারপ্রিন্ট অথবা ফেস আনলকের মাধ্যমে আনলক করলেই নতুন WhatsApp ওয়েবে লগ ইন হবে।


No comments:

Powered by Blogger.