WhatsApp-এ খোঁজ পাবেন Covid-19 টিকাকরণ কেন্দ্র, জানুন সহজ পদ্ধতি


Gamebazz  ডেস্ক: WhatsApp ভারতে একটি নতুন ফিচার নিয়ে হাজির হয়েছে, যার সাহায্যে ইউজারেরা তাঁদের নিকটবর্তী Covid-19 টিকাকরণ কেন্দ্রের সন্ধান করে নিতে পারবেন। একটি চ্যাটবোটের সাহায্যে WhatsApp-এর এই ফিচার কাজে আসবে এবং স্বাস্থ্যসংক্রান্ত বিভিন্ন পার্টনার থেকে শুরু করে হেল্পলাইন একত্রিত হয়ে এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপের মধ্যে দিয়েই কোভিড টিকাকরণ কেন্দ্র খুঁজে দেবে ইউজারদের।


সম্প্রতি একটি টুইট করে এই ডেভেলপমেন্টের কথা জানান WhatsApp-এর প্রধান উইল কাথকার্ট। ভারতে Covid-19 দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ায় সাধারণ মানুষ যে কী পরিমাণ সমস্যার সম্মুখীন, তারই সুরাহার কথা বলে টুইটে এই WhatsApp ফিচারের ঘোষণা শুধুমাত্র ভারতীয় ইউজারদের জন্যই করেন কাথকার্ট। তাঁর কথায়, 'এই WhatsApp ফিচার ভারতীয়দের খুবই সাহায্য করবে।'


বিশেষ এই ফাংশান যোগ করা হয়েছে, WhatsApp-এর MyGov Corona Helpdesk চ্যাটবোটে। মনে রাখা জরুরি যে, এই চ্যাটবোট লঞ্চ করা হয়েছিল, সারা বিশ্বজুড়েই করোনার প্রথম পর্যায়ের ঢেউ আছড়ে পড়ার পরই। তার পর থেকেই WhatsApp-এ করোনার একাধিক জরুরি তথ্য জানতে ইউজারদের কাজে এসেছে এই ফিচার। এবার সেই ফিচারেই কোভিডের ভ্যাকসিন সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্যও জানতে পারবেন ইউজারেরা। আপনার বাড়ির কাছে কোথায় Covid-19 টিকা দেওয়া হচ্ছে, তা-ও জানতে পারবেন ইউজারেরা।



আপনার নিকটবর্তী Covid-19 টিকাকরণ কেন্দ্র কোথায়, WhatsApp-এর সাহায্যে কী ভাবে জানবেন?


* প্রথমেই আপনার কন্ট্যাক্ট লিস্টে +91 9013151515 নম্বরটি সেভ করে রাখুন। এটিই হল ভারত সরকারের করোনা হেল্পডেস্ক নম্বর।


* এবার আপনি সেই নম্বরে চ্যাট শুরু করুন। Hi, Hello বা নমস্তে যা খুশি লিখে পাঠাতে পারেন।



* আপনার কাছে একটি অটোমেটেড উত্তর আসবে। সেই মেসেজে থাকবে এমারজেন্সি কিছু কন্ট্যাক্টস। এছাড়াও থাকবে কী ভাবে আরোগ্য সেতু অ্যাপের সঙ্গে লিঙ্ক করবেন এবং সেই সংক্রান্ত কিছু প্রশ্নও আপনাকে করা হবে।


* চ্যাটে আপনার পছন্দসই উত্তর দিয়ে দিন এবং আপনাকে তারপরই বেছে নিতে হবে কোভিড টিকাকরণ কেন্দ্র। অপশনের প্রথমেই থাকবে টিকাকরণ কেন্দ্র এবং ভ্যাকসিন সংক্রান্ত অন্যান্য আরও তথ্য।


* একটা বিষয় মাথায় রাখবেন যে, এই WhatsApp চ্যাটবোট থেকে অটোমেটিক্যালি উত্তর আসতে 1 মিনিট বা তার খুব সামান্য বেশি সময় লাগতে পারে। অধৈর্য্য হবেন না, উত্তর আপনার কাছে ঠিক আসবেই।


দেশে করোনার জন্য হাসপাতালগুলি থেকে বেডের খোঁজে এবং সর্বোপরি অক্সিজেনের খোঁজে দেশবাসীকে হন্যে হয়ে খুঁজে বেড়াতে হচ্ছে। আবার দেশের বিভিন্ন রাজ্যে টিকাও পাওয়া যাচ্ছে না। তারই মধ্যে আবার 1 মে থেকে ভারতে শুরু হয়েছে, 18 থেকে 44 বছর বয়সীদের টিকাকরণ। সেই টিকাকরণের জন্য ইউজারেরা আরোগ্যসেতু অ্যাপ, Co-WIN পোর্টাল বা উমঙ্গ অ্যাপ থেকে রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন।

No comments:

Powered by Blogger.