করোনা সংকটে অনলাইনে সহজেই পাবেন Personal Loan! জানুন কী ভাবে করবেন আবেদন?



খুব জলদিই আপনার টাকার প্রয়োজন? আর এমনই এক সময়ে আপনাকে সাহায্য করতে পারে পার্সোনাল লোন। যেহেতু খুব দ্রুত টাকা পাবেন তাই এই লোনে আপনাকে তুলনামূলক ভাবে বেশি সুদ দিতে হতে পারে। যদিও বিপদের সময়ে অথবা প্রয়োজনে টাকা হাতে পেলে আপনার সুবিধাই হবে।


এই ধরনের লোন পেতে গেলে, এখন বাড়িতে বসেই অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। খুব দ্রুত সহজেই এই লোনের আবেদন জমা দিতে পারবেন। জমা দেওয়ার পর খুব তাড়াতাড়িই অনুমোদনও পেয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যদিও পার্সোনাল লোনের জন্য আপনাকে কোম্পানির নির্দিষ্ট কিছু শর্তাবলী মেনে চলতে হবে। তার সঙ্গেই জমা দিতে হবে কিছু জরুরি নথি।


মাসিক আয়: অনলাইনে পার্সোনাল লোনের আবেদন করার সময় নির্ণায়ক হিসেবে সব থেকে বেশি ভূমিকা পালন করে আপনার মাসিক আয়।

ক্রেডিট স্কোর: এছাড়াও অনলাইনে পার্সোনাল লোন পাওয়ার জন্য প্রয়োজন ভালো ক্রেডিট স্কোর।

কোম্পানির সুনাম: আপনি যে কোম্পানিতে কাজ করেন, সেই কোম্পানির সুনামের উপরেও নির্ভর করে পার্সোনাল লোন পাওয়ার ভাগ্য।

লোন শোধ করার ইতিহাস: ক্রেডিট স্কোর ছাড়াও সেই ব্যক্তির লোন শোধ করার ইতিহাস দেখা হয়।

ব্যাঙ্কের সঙ্গে সম্পর্ক: ব্যাঙ্কের সঙ্গে আপনার সম্পর্কের উপরেও নির্ভর করবে, আপনার পার্সোনাল লোন পাওয়ার সম্ভাবনা।



অনলাইনে কোথায় আবেদন করবেন?


সব ব্যাঙ্ক, NBFC, আর্থিক সংস্থার ওয়েবসাইট থেকে পার্সোনাল লোনের জন্য আবেদন জানানো যাবে। যে ব্যাঙ্কে স্যালারি অ্যাকাউন্ট রয়েছে সেই ব্যাঙ্ক থেকে পার্সোনাল লোন নিতে হবে, এমন কোনও নিয়ম নেই। চাইলে অন্য যে কোনও ব্যাঙ্কের ওয়েবসাইটে পার্সোনাল লোনের জন্য আবেদন করতে পারেন।


অনলাইনে পার্সোনাল লোন পেতে যা যা প্রয়োজন -


* মোবাইল নম্বর আধার কার্ডের সঙ্গে লিঙ্ক থাকতে হবে।

* আধার কার্ড ও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে আপনার বর্তমান ঠিকানা থাকতে হবে।

* যে কোনও একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে, যে অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে মাইনে জমা হয়।

* এছাড়াও ব্যাঙ্কের সঙ্গে সেই নম্বর লিঙ্ক থাকতে হবে, যেটি আপনার আধারের সঙ্গে লিঙ্কড রয়েছে।

* পাশাপাশিই আবার সব KYC নথির কপি আপনার কাছে থাকতে হবে। ভিডিয়ো KYC-র জন্য এই নথি প্রয়োজন হবে।

* আপনার ইমেল আইডি থেকে কোনও মেল পাঠানোর ব্যবস্থা চালু থাকতে হবে।

No comments:

Powered by Blogger.